মঙ্গলবার, ০৯ মার্চ ২০২১, ০৩:২৯ অপরাহ্ন
add

দুঃসময়ের বন্ধু হয়ে নিজের জমি বিক্রি করে জুনিয়র আইনজীবীদের পাশে দাঁড়ালেন অ্যাডভোকেট বাচ্চু

নিজস্ব প্রতিনিধি / ৯১ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : শুক্রবার, ৭ আগস্ট, ২০২০
add

করোনাভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে নিয়মিত আদালত বন্ধ ছিল। চলছিল ভার্চুয়াল আদালত। ভার্চুয়াল আদালতে জুনিয়র আইনজীবীরা তেমন মামলা পাননি। এই পরিস্থিতিতে অনেক জুনিয়র আইনজীবীর চলাচল কষ্টকর হয়ে যায়। অনেকে অর্থনৈতিক সংকটের কারণে বাসা ভাড়াও দিতে পারেননি। কারও আবার হাত খরচের টাকাও ছিল না।

জুনিয়র আইনজীবীদের এসব কষ্ট চোখে পড়ে ঢাকা আইনজীবী সমিতির সাবেক কার্যনির্বাহী কমিটির সদস্য এমারত হোসেন বাচ্চুর। তাদের সহযোগিতার জন্য তিনি বসুন্ধরায় নিজের বাসা করার জন্য কেনা জমি বিক্রি করেন ৩৫ লাখ টাকায়। এই ৩৫ লাখ টাকা তিনি বিনা সুদে ২৯৩ জন জুনিয়র আইনজীবীকে (সনদ হওয়ার ১-৫ বছর) ঋণ দেন। কাউকে ১০ হাজার আবার কাউকে ২০ থেকে ৩০ হাজার টাকা ঋণ দেন। তার এই ব্যতিক্রমধর্মী উদ্যোগ এর কারণে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তার প্রশংসার ঢল নেমে এসেছে। তাকে নিয়ে কয়েকজন বিজ্ঞ আইনজীবীর স্ট্যাটাস তুলে ধরা হলোঃ

অ্যাডভোকেট ইকতান্দার বাপ্পী তার ফেসবুকে পোস্টে বলেন, একজন আইনজীবী কত বড় হৃদয়ের অধিকারী হতে পারেন তার জ্বলন্ত উদাহরণ আমাদের সবার প্রিয় বাচ্চু ভাই। করোনা বিপর্যয়ের সময় জুনিয়র আইনজীবীদের (প্রাকটিস ১ হতে ৫ বছর) পাশে থাকার জন্য পৈতৃক সম্পত্তি স্বাভাবিক সময়ে যার বাজার মূল্য ছিল ৫০ লাখের বেশি সেটা ৩৫ লাখে বিক্রি করে দিলেন।

অ্যাডভোকেট মো. সারওয়ার আলম তার ফেসবুকে পোস্ট করে বলেন, করোনার বিপর্যয়ের সময় জুনিয়র আইনজীবীদের (প্রাকটিস ১ হতে ৫ বছর) পাশে থাকার জন্য পৈতৃক সম্পত্তি স্বাভাবিক সময়ে যার বাজার মূল্য ছিল ৫০ লাখের বেশি সেটা ৩৫ লাখে বিক্রি করে দিলেন! সত্যিকারের মানবতাবাদী এবং দেশপ্রেমিক লোকগুলো একটু বেশি আবেগী হয়। মুজিব কোর্ট আপনাকেই মানায় ভাই। আশপাশের অনেক চোর এটা পরিধান করে সেই ঘেন্নায় আমিও পরিধান করতে দ্বিধাবোধ করি!

অ্যাড. নাজমুস সাকিব তুষ্টি বলেন, আমি আর বাচ্চু স্টামফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বন্ধু! শুধু বিশ্ববিদ্যালয় নয় বাচ্চুর জন্য সমগ্র তরুন আইনজীবী সমাজ আজ গর্বিত!

অ্যাডভোকেট মাসরাত তার ফেসবুক পোস্টে বলেন, আইন অঙ্গনের প্রিয় মুখ এমারাত হোসেন বাচ্চু তরুণ আইনজীবীদের কথা চিন্তা করে নিজের সম্পদ বিক্রি করে বিনা সুদে লোন দিয়েছেন, যা মহামারির দুঃসময় পর ফেরত নেবেন। এই মহতী উদ্যোগ সত্যিই প্রশংসনীয়।

এ বিষয় এমারত হোসেন বাচ্চু বলেন, আমার সাধ্যের মধ্যে যতটুকু পেরেছি চেষ্টা করেছি এই মহামারীর সময় সকলের পাশে দাঁড়ানোর। আল্লাহ তৌফিক দিলে ভবিষ্যতেও আমি আমাদের আইনজীবী পরিবারের জন্য কাজ করে যাব ইনশাআল্লাহ। আমি সকলের কাছে দোয়া প্রার্থী।

বি/কে, মাগুরা নিউজ টুডে।

add

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু

বিশ্বে

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু

বাংলাদেশে কোরোনা

সর্বশেষ (গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্ট)
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
সর্বমোট