শনিবার, ২১ মে ২০২২, ০৬:৩১ পূর্বাহ্ন
add

অনলাইন ক্লাস নিয়ে খুবি শিক্ষার্থীদের ভাবনা

খুবি প্রতিনিধি, প্রান প্রতিম কুন্ডু / ২৪৮ বার এই সংবাদটি পড়া হয়েছে
প্রকাশের সময় : মঙ্গলবার, ২৫ জানুয়ারী, ২০২২
add

সারাদেশে করোনাভাইরাসে সংক্রমনের হার আশংকাজনকভাবে বেড়ে যাওয়ায় গত শুক্রবার এক জরুরি সভায় আগামী ৬ ফেব্রুয়ারি অবধি সশরীর ক্লাস বন্ধের ঘোষণা দেয় খুলনা বিশ্ববিদ্যালয় কতৃপক্ষ। শিক্ষার্থীরা যাতে পিছিয়ে না পড়ে এজন্য অনলাইনে ক্লাস নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। এ সিদ্ধান্তে শিক্ষার্থীদের অনেকে খুশি হলেও, কেউ কেউ অভিযোগ তুলেছেন। দূর্বল ইন্টারনেট সংযোগ, উন্নতমানের ডিভাইস না থাকা, অনলাইনে পড়া বুঝতে সমস্যা হওয়া সহ নানা সমস্যার কথা তুলে ধরেছেন তারা।

“সশরীরে ক্লাস হলে আমরা টপিকগুলো নিয়ে গভীরভাবে চিন্তা করার সুযোগ পাই”- আজাদ মিয়া, গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা ডিসিপ্লিন, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়।

অনলাইন ক্লাসের সবচেয়ে বড় সুবিধা হচ্ছে কোন শিক্ষার্থী অথবা শিক্ষক শারীরিকভাবে অসুস্থ থাকলে ঘরে বসেই ক্লাসে অংশগ্রহণ করতে পারেন। তবে, অনলাইন ক্লাসে যেন টপিকগুলো ঠিক জমে ওঠে না। গভীরভাবে অনুভব করতে পারি না । কিন্তু সশরীরে ক্লাস হলে শিক্ষকদের সাথে সরাসরি যোগাযোগ থাকায়, ক্লাস হয় আরো বেশি স্বতঃস্ফূর্ত। এছাড়াও সশরীর ক্লাসে আমরা গবেষণামূলক কাজ করতে পারি যা অনলাইন ক্লাসে সম্ভব হয় না। অনেক শিক্ষার্থী ভালো ডিভাইস না থাকায় এবং ইন্টারনেট সংযোগ খরচসাপেক্ষ হওয়ায় সমস্যার সম্মুখীন হয়।

“ ব্যবহারিক ক্লাস অনলাইনে করা সম্ভব নয়”- মোহসানা আহসান সাবা, প্রিন্ট মেকিং ডিসিপ্লিন, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়।

আমাদের চারুকলা স্কুলে ব্যবহারিকের উপর গুরুত্ব দেওয়া হয় বেশি। তাত্বিক বিষয়গুলো অনলাইন ক্লাসের মাধ্যমে নেওয়া সম্ভব হলেও ব্যবহারিক ক্লাস নেওয়া সম্ভব হয় না। যেকারণে অনলাইন ক্লাসগুলো মূলত কোনো কাজেই আসছে না।

“ ক্যাম্পাসে সশরীরে ক্লাস করতে হয় না। যাতায়াতের খরচটা বাঁচে।”- মুশফিকুল ইসলাম স্বাধীন, ব্যবসায় প্রশাসন ডিসিপ্লিন, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়।

অনলাইনে ক্লাস হলে সশরীরে ক্লাসে উপস্থিত থেকে ক্লাস করতে হচ্ছে না। ফলে যাতায়াতের খরচ টা বাঁচে। তাছাড়া, টিচারের অনুমতি সাপেক্ষে ক্লাস রেকর্ডগুলো শিক্ষার্থীরা সংগ্রহ করার সুযোগ পায়। ফলে কোনো ক্লাসে উপস্থিত থাকতে না পারলে পরবর্তীতে রেকর্ড দেখে পড়া বুঝে নেওয়া যায়। অনলাইনে ক্লাস হলে এটাই সুবিধা। আর অসুবিধা বলতে অনেকে নানা সমস্যার কারণে অনলাইন ক্লাসে ততোটা মনোযোগী হতে পারে না।

“ প্রত্যন্ত অঞ্চলের ছাত্র-ছাত্রীদের সমস্যা হচ্ছে”- কান্তা রায়, স্থাপত্য ডিসিপ্লিন, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়।

আমাদের বিষয়ে গ্রুপ ওয়ার্ক, ফিল্ড ওয়ার্ক করতে হয়। অনলাইনে ক্লাস হলে তা সম্ভব হচ্ছে না। আর সবচেয়ে বড় বিষয়, যারা শহরে থাকে তারা উচ্চগতির ইন্টারনেট সংযোগ ব্যবহার করতে পারে৷ ফলে তাদের ততোটা সমস্যা হয় না। তবে, যারা যেসব শিক্ষার্থী প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে ক্লাস করে, সেখানে ইন্টারনেটের গতিবেগ উন্নত নয় বিধায় তারা ঠকমত ক্লাস করতে পারছে না। ফলে তারা বাকিদের থেকে পিছিয়ে পড়ছে।

add

আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এই ক্যাটাগরির আরো সংবাদ

বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাস

বাংলাদেশে

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু

বিশ্বে

আক্রান্ত
সুস্থ
মৃত্যু

বাংলাদেশে কোরোনা

সর্বশেষ (গত ২৪ ঘন্টার রিপোর্ট)
আক্রান্ত
মৃত্যু
সুস্থ
পরীক্ষা
সর্বমোট